০৫:৩৭ অপরাহ্ন, সেপ্টেম্বর ০৬, ২০১৬ / সর্বশেষ সংশোধিত: ০৫:৪৪ অপরাহ্ন, সেপ্টেম্বর ০৬, ২০১৬

মেকআপে পরিপাটি

Share this with

Copy this link

ঈদ আমাদের বড় উৎসব। আর এই উৎসবে আমরা সবাই চাই ফ্রেশ আর সুন্দর দেখতে। আর উৎসব বলে যতই কিচেনে বা মেহমানদারিতে ব্যস্ত থাকি না কেন একটু মেকআপ না করলেই নয়। মেকআপ করার সময় তাই আবহাওয়ার কথাটাও মাথায় রাখতে হবে। বর্ষা চলছে তবে গরমের ঘাটতি তেমন একটা হয়নি বললেই চলে। আর তাই মেকআপের সময় কিছুটা সাবধানতা মেনে চলতে হবে। সঠিকভাবে মেকআপ করলে আপনি থাকবেন সারাদিন ফ্রেশ উজ্জ্বল।
মেকআপের জন্য পরিষ্কার ত্বক খুবই জরুরি। ক্লিনজিং জেল বা ক্রিম ভালো করে লাগান। তারপর ভেজা তুলো দিয়ে মুখ মুছে ফেলুন। মেকআপ প্রডাক্ট কেনার আগেই খেয়াল করুন কী ধরনের প্রডাক্ট ব্যবহার করবেন ও কী রং ব্যবহার করবেন। এ সময় পারফেক্ট চয়েজ হলো ওয়াটার বেসড ও পাউডার মেকআপ। মেকআপ বেশিক্ষণ ফ্রেশ রাখার জন্য কিছু প্রস্তুতি নিতে পারেন।
পরিষ্কার কাপড়ে আইস কিউব জড়িয়ে মুখ মুছে ফেলুন। বড় রোমকূপের মুখ বন্ধ করতে সাহায্য করবে। তৈলাক্ত ত্বকে ফাউন্ডেশন বা পাউডার লাগানোর আগে অ্যাসট্রিনজেন্ট লোশন দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নিন। কিছুক্ষণ পর ফাউন্ডেশন লাগান। ঘাড়, গলায় ও মুখে পাউডার লাগানোর সময় হালকা ভেজা স্পঞ্জ ব্যবহার করুন। পাউডার সহজে সেট করবে। লুজ পাউডারের থেকে কমপ্যাক্ট পাউডার বেশিক্ষণ থাকে আর স্মুথ ও ফিনিশ হয়। মেকআপ চড়া হয়ে গেলে কিছুটা মেকআপ রিমুভ করার জন্য টিস্যু ব্যবহার করুন। আই পেন্সিলের কাজল কিছুক্ষণ পর মুছে যায়। তার বদলে লিকুইড আই লাইনার ব্যবহার করুন। লিপস্টিক লাগানোর আগে ঠোঁটে কিছুটা ফাউন্ডেশন লাগান। লিপস্টিক সহজে উঠে যাবে না।


মুখ
এ সময় মুখের মেকআপ হালকা রাখুন। বেশি পরিমাণে ফাউন্ডেশন লাগাবেন না। অতিরিক্ত ফাউন্ডেশন ত্বকে জমে যায়। বেশি ঘাম হয়, ত্বকে বলিরেখা ফুটে ওঠে। ফাউন্ডেশন লাগানোর আগে গোলাপজল বা গোলাপজল দিয়ে তৈরি টনিক দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নিন। তারপর পরিষ্কার কাপড়ে বরফ নিয়ে হালকা হাতে ঘষুন, রোমকূপের মুখ বন্ধ থাকবে। তারপর হেয়ার লাইন বাদ দিয়ে মুখের বাকি অংশে ভালো করে ফাউন্ডেশন লাগান। এবার হালকা ব্রাশ লাগাতে পারেন চিকবোনে। চকচকে ভাব কমাতে কমপ্যাক্ট পাউডার ব্যবহার করুন।


চোখ
দিনে চোখের মেকআপ হবে হালকা, আই পেন্সিল ও মাসকারা দিয়ে চোখ হাইলাইট করুন। যে কোনো হালকা রং যেমন বেজ, হালকা ব্রাউন, গ্রে আইশ্যাডো লাগাতে পারেন ব্রো বোনের ওপর। তারপর মাসকারা লাগান। মাসকারা লাগালে চোখ উজ্জ্বল দেখায়। আই ল্যাশ কালার দিয়ে চোখের পাতা কার্ল করুন। গ্লসি ব্ল্যাক শেডের টাচে আনুন গ্লো। ওয়াটার প্রুফ আইলাইনার পেন্সিল ব্যবহার করুন। নেভি ব্লু, স্লেট গ্রে বা ওয়ার্ম চকোলেট কালার ট্রাই করতে পারেন। পুদিনা পাতার রং ম্যাঙ্গো গ্রিন, টারকয়েজ ব্লু, পিচ, পেটলি পিক রঙের আই মেকআপ ট্রাই করুন চোখে। রাতে উজ্জ্বল রঙের আইলাইনার ব্যবহার করুন। ফ্রস্টেড হাইলাইট ব্রো বোনে লাগান। স্মোকি লুক চাইলে স্পঞ্জ দিয়ে আইলাইনার ঘষে দিন।


ঠোঁট
ন্যাচারাল কালারের লিপকালার ব্যবহার করুন। লিপস্টিক লাগানোর পর লিপগ্লস বা এমপিএফ সমৃদ্ধ লিপবাম লাগান। ঠোঁটের ময়েশ্চার বজায় রাখে। আবার রোদ থেকে ঠোঁটকে রক্ষা করে। ফ্রস্টি লিপস্টিক ব্যবহার করতে পারেন। ঠোঁটে শাইন আসবে। পিঙ্ক বা মভ রঙের লিপস্টিক বাছুন। দিনে শুধু লিপগ্লস লাগাতে পারলেই ভালো। রাতে গাঢ় রং লাগান। প্লাম, ওয়াইন, বারগান্ডি, কোরাল, ব্রঞ্জ রঙের লিপস্টিক ট্রাই করুন। ন্যুড ন্যাচারাল লুকই ঠোঁটের জন্য এ সময় আদর্শ। পার্টি বা অনুষ্ঠানে গেলে হালকা করে লিপ লাইনার দিয়ে আউটলাইন করে নিন।
তারপর ব্রাশ দিয়ে লিপ কালার লাগান। টিস্যু দিয়ে হালকা করে অতিরিক্ত লিপস্টিক মুছে নিন। তারপর আর একবার লিপস্টিক লাগান। শেষে লিপগ্লস লাগিয়ে টাচআপ করুন। যদি ঠোঁট শুকনো হয় ম্যাট লিপস্টিক না লাগিয়ে গ্লসি লিপস্টিক লাগান। ঠোঁট পাতলা হলে হালকা রঙের এবং গ্লসি লিপস্টিক ট্রাই করতে পারেন।


নখ
নখ পরিষ্কার করে সঠিক শেপে কেটে নিন। কালারলেস বেস কেটে লাগিয়ে শুকনো করে নিন। পরের স্টেপে প্রথমে নেইলপলিশ লাগিয়ে ১০ মিনিট পর আবার নেইলপলিশের সেকেন্ড কোট লাগান। শুকালে আর একবার কালারলেস বেসকোট লাগিয়ে ফিনিশ করুন। সাজসজ্জায় পূর্ণতা এনে ঈদকে আনন্দময় করে তুলুন।
 রাহনুমা শর্মী
ছবি : সংগ্রহ

পাঠকের মন্তব্য

Top